বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ২০২০

বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান
Content Protection by DMCA.com

প্রতি বছর বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন বিষয়ের উপর গবেষণা করে তাদের প্রতিবেদন প্রকাশ করে। যেখানে তারা বিশ্বের বিভিন্ন দেশের তথ্য-উপাত্ত যাচাই করে একটি তালিকা প্রকাশ করে। সে তালিকায় বিভিন্ন সূচকে কোন দেশের অবস্থান কত এবং বিগত বছরগুলোতে কতটুকু পরিবর্তন হয়েছে তা উল্লেখ থাকে। এমনকি মাঝে-মাঝে সে তথ্যের উপর বিশ্লেষণ করে পরবর্তী বছরগুলোতে তার কি পরিমান পরিবর্তন হতে পারে সে সম্পর্কে ধারনা দেওয়া হয়।

সারা বছর ধরেই নানা আন্তর্জাতিক সংস্থা বিভিন্ন সূচক প্রকাশ করে থাকে। ওই সব সূচকে বাংলাদেশ আগের চেয়ে কয়টিতে ভালো করেছে, কয়টি সূচকে খারাপ করেছে। সার্বিকভাবে এসব সূচক দিয়ে বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান নির্ধারণ করা হয়। বিদেশিদের কাছে দেশের ভাবমূর্তি ঠিক হয়।

নিম্নে বিশ্বের কোন সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান কত তম তার একটি তালিকা দেওয়া হল:

টেকসই উন্নয়ন প্রতিবেদন ২০২০:
এসডিজির ১৭টি লক্ষ্যের ভিত্তি করে নম্বরের ভিত্তিতে র‍্যাঙ্কিং করা হয়েছে-

👉 টেকসই উন্নয়ন প্রতিবেদন ২০২০-এ শীর্ষে রয়েছে সুইডেন।  এ ক্ষেত্রে সুইডেনের প্রাপ্ত নম্বর ৮৩ দশমিক ৭২।
👉 বাংলাদেশ ৬৩ দশমিক ৫১ নম্বর নিয়ে আছে র‍্যাঙ্কিংয়ে ১০৯-এ।
👉 এ প্রতিবেদনে সর্বশেষ অবস্থানে রয়েছে সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক।

প্রতিবেদনে বাংলাদেশ প্রসঙ্গে বলা হয়েছে, ১৭টি লক্ষ্যের মধ্যে ৪টিতে বাংলাদেশ সঠিক পথেই অগ্রসর হচ্ছে। ছয়টিতে অল্প কিছু উন্নতি করেছে। তিনটি লক্ষ্যের ক্ষেত্রে স্থবির অবস্থায় রয়েছে। আর দুটিতে অবনতি ঘটেছে। বাকি দুটির বিষয়ে কোনো হালনাগাদ তথ্য মেলেনি বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।

বিশ্ব শান্তি সূচক ২০২০ (Global Peace Index 2020):
অস্ট্রেলিয়ার সিডনিভিত্তিক আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইনস্টিটিউট ফর ইকোনমিকস অ্যান্ড পিস (আইইপি) প্রতি বছর এই বিশ্ব শান্তি সূচক-২০২০ প্রকাশ করে।

👉 ২.১২১ জিপিআই স্কোর নিয়ে ১৬৩টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ৯৭তম। ২০১৯ সালে এই সূচকে বাংলাদেশ ছিল ১০১তম।

সূচকে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশ রয়েছে চতুর্থ স্থানে। যথারীতি শীর্ষে রয়েছে ভুটান। দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে রয়েছে নেপাল ও শ্রীলঙ্কা। ভারত, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান রয়েছে পঞ্চম, ষষ্ঠ ও সপ্তাম স্থানে।

👉 বিশ্ব শান্তি সূচকে শীর্ষে রয়েছে আইসল্যান্ড। দেশটি ২০০৮ সাল থেকে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে। দ্বিতীয় স্থানে আছে নিউজিল্যান্ড, পর্তুগাল তৃতীয়।

👉 ১৬৩ তম (সর্বশেষ অবস্থান): আফগানিস্তান।

বিশ্ব শান্তি সূচকে চার ধাপ উন্নতি হয়েছে বাংলাদেশের। সূচক নির্ধারণের যে তিনটি ডোমেইন রয়েছে সেগুলোর সবকটিতেই উন্নতি করেছে বাংলাদেশ। বিশেষ করে সুরক্ষা ও নিরাপত্তায়।

মানবসম্পদ সূচক-২০২০ (Human Capital Index 2020):
মানবসম্পদ সূচক-২০২০ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বিশ্বব্যাংক। প্রতিবেদনে ১৭৪টি দেশকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

👉 সূচকে সবচেয়ে ভালো অবস্থানে বা শীর্ষ স্থানে রয়েছে সিঙ্গাপুর এবং খারাপের দিক থেকে প্রথম স্থানে রয়েছে সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক

👉 এই সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ১২৩তম

👉 যুক্তরাজ্য – ১১তম, যুক্তরাষ্ট্র – ৩৫তম, চীন – ৪৫তম।
👉 দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে ভালো অবস্থানে রয়েছে শ্রীলঙ্কা (১০৪তম)।

মানব উন্নয়ন সূচক-২০১৯ (Human Development Index 2019):
জাতিসংঘ মানব উন্নয়ন সূচকে পরিসংখ্যানগতভাবে কোন দেশের মানব উন্নয়ন সংক্রান্ত তথ্যাদি তুলে ধরে। উচ্চমাত্রার মানব উন্নয়ন সূচকের সাথে উন্নত দেশের ভবিষ্যতের অর্থনীতির গতিধারা গভীরভাবে সম্পর্কযুক্ত। সেখানে একটি দেশের আর্থিক আয় কিংবা উৎপাদনশীলতার চেয়ে অন্যান্য বিষয়াদির উপর ব্যাপক গুরুত্বারোপ করা হয়। মাথাপিছু মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদন কিংবা মাথাপিছ আয়ের পাশাপাশি আয়ের কতটুকু অংশ শিক্ষা এবং স্বাস্থ্যখাতে ব্যয়িত হয়েছে তা-ও তুলে ধরা হয়।

👉 মানব উন্নয়ন সূচকে ১৮৯ দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ১৩৫তম।

👉 সূচকে সবচেয়ে ভালো অবস্থানে রয়েছে নরওয়ে। ইউরোপের এ দেশটির এইচডিআই স্কোর শূন্য দশমিক ৯৫৩ থেকে বেড়ে শূন্য দশমিক ৯৫৪ হয়েছে।

এক নজরে বিভিন্ন সূচকে বাংলাদেশের অবস্থানঃ

👉 বিশ্বব্যাংকের বাণিজ্য সহজীকরণ সূচক-২০২০: ১৯০ দেশের তালিকায় বাংলাদেশ ১৬৮তম।

👉 হেরিটেজ ফাউন্ডেশনের অর্থনৈতিক স্বাধীনতা সূচক-২০২০: ১৮০ দেশের তালিকায় বাংলাদেশ ১২২তম।

👉 ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের দুর্নীতি সূচক-২০১৯: ১৮০ দেশের তালিকায় বাংলাদেশ ১৪৬তম।

👉 জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা সূচকে বাংলাদেশ- ১ম।

👉 দুষিত বায়ুর সূচকে বাংলাদেশ- ১ম (২০১৯ সালের IQAir এর তথ্য মতে)

👉 প্রবাসী হওয়ার সূচকে বাংলাদেশ- ৫ম (শীর্ষ -ভারত)

👉 বৈশ্বিক জলবায়ু ঝুঁকি সূচকে বাংলাদেশ-৩য়

👉 জিডিপিতে প্র‍বাসী আয়ের অবদান সূচকে-৯ম (শীর্ষ -ভারত)

👉 দুর্নীতি ধারণ সূচকে(নিম্নক্রম) – ১৪ তম

👉 বৈশ্বিক সন্ত্রাসবাদ সূচকে- ৩১তম (শীর্ষ- আফগানিস্তান)

👉 বিশ্ব অর্থনীতির – ৪১তম (শীর্ষ- যুক্তরাষ্ট্র)

👉 ক্রয়ক্ষমতার সূচকে- ৩০ তম

👉 লিঙ্গ বৈষম্য সূচকে-৫০ তম(শীর্ষ-আইসল্যান্ড স:নিন্ম-ইয়েমেন)

👉 নারীর অর্থনৈতিক অংশগ্রহণ ও সুযোগে- ১৪১ তম

👉 রাজনৈতিক ক্ষমতা সূচকে- ৭ম

👉 শিক্ষায় অংশগ্রহণ সূচকে – ১২০ তম

👉 স্বাস্থ্য ও আয়ু সূচকে – ১১৯ তম

👉 সামরিক শক্তি সূচকে – ৪৬ তম (শীর্ষ -যুক্তরাষ্ট্র)

👉 ইতিবাচক শান্তি সূচকে – ৯৭ তম (শীর্ষ -আইসল্যান্ড)

👉 বিশ্বের সুখী দেশের তালিকাতে-১০৭ তম (শীর্ষ -ফিনল্যান্ড)

👉 ক্ষুধা সূচকে – ৮৮ তম ( ২০১৯ সালের তথ্য মতে)

👉 শিশু অধিকার সূচকে – ১০৮ তম ( শীর্ষ – ফিনল্যান্ড)

👉 ই-কমার্স সূচকে- ১০৩ তম ( শীর্ষ -নেদারল্যান্ডস)

👉 পাসপোর্ট মূল্যয়ন সূচকে – ১০১তম (শীর্ষ- জাপান)

👉 আইনের শাসন সূচকে-১১৫তম(শীর্ষ-ডেনমার্ক,নরওয়ে ও ফিনল্যান্ড)

👉 বৈশ্বিক প্রতিযোগিতা সক্ষমতা সূচকে-১০৫ তম (শীর্ষ- সিঙ্গাপুর)

👉 বৈশ্বিক নারী উদ্যোক্তা সূচকে- ৫৭ তম (শীর্ষ- যুক্তরাষ্ট্র)

👉 মানব উন্নয়ন সূচকে – ১৩৫ তম (শীর্ষ- নরওয়ে)

👉 মানব সম্পদ সূচকে – ? (শীর্ষ – নরওয়ে)

👉 নিরাপদ পানির সূচকে- ১২৪ তম

👉 অর্থনৈতিক স্বাধীনতা সূচকে – ১২২ তম (শীর্ষ- সিঙ্গাপুর)

👉 গনতন্ত্র‍ সূচকে – ৮০ তম (শীর্ষ- নরওয়ে)

👉 দুর্নীতি ধারণ সূচকে(উচ্চক্র‍ম)- ১৪৬ তম

👉 সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতা সূচকে-১৫১তম( শীর্ষ- নরওয়ে)

👉 ডুয়িং বিজনেস সূচকে- ১৬৮ তম

👉 দ্রুত সম্পদ বৃদ্ধির সূচকে- ১ম

👉 বৈশ্বিক সামাজিক উত্তোরণ সূচকে-৭৮ তম (শীর্ষ- ডেনমার্ক)

👉 শীর্ষ ব্যয়বহুল দেশের তালিকায়-১১০ তম (শীর্ষ- সুইজারল্যান্ড)

আরও পড়ুনঃ

ফেইসবুকে আপডেট পেতে আমাদের অফিসিয়াল পেইজ ও অফিসিয়াল গ্রুপের সাথে যুক্ত থাকুন। ইউটিউবে পড়াশুনার ভিডিও পেতে আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন।

আপনার টাইমলাইনে শেয়ার করতে ফেসবুক আইকনে ক্লিক করুন-