চীনা নীতি বা তত্ত্বসমূহ

আন্তর্জাতিক বিষয়াবলী
Content Protection by DMCA.com

বিসিএস ও ব্যাংক
চীনা নীতি বা তত্ত্বসমূহ

চীনা নীতি বা তত্ত্বসমূহ থেকে বিভিন্ন চাকরির পরীক্ষায় প্রশ্ন আসে । তাই দেখে নিন:

1. কনফুসিয়াস নীতি। কনফুসিয়াস ছিলেন চীনের শক্তিশালী দার্শনিক।

2. মাওবাদ। মাও সেতুং ছিলেন চীনের প্রভাবশালী নেতা।

3. তাওবাদ, একটি ঐতিহ্যবাহী চীনা ধর্ম।

4. সমাজতন্ত্র নীতি। ১৯৪৯ সালে চীনে সমাজতন্ত্র বিপ্লবের মাধ্যমে এ নীতি প্রতিষ্ঠিত হয়।

5. এক সন্তান নীতি। এটি এখন আর কার্যকরী নয়। জনসংখ্যা বৃদ্ধির জন্য চীনে ৩ সন্তান নীতি গ্রহণ ৩১মে ,২০২১।দুই সন্তান= ২০১৬ সালে । আর লাগাম টেনে ধরার জন্য ১৯৭৯ সালে ‘এক সন্তান নীতি’ চালু করা হয়েছিল।

6. দ্বৈত অর্থনীতি। হংকং এর অর্থনীতিকে সচল রাখার জন্য ২০৪৭ সাল পর্যন্ত সমাজতন্ত্র ও পুঁজিবাদীর মিশ্রণ নীতি চালু থাকবে।

7. “বেল্ট এন্ড রোড ইনিশিয়েটিভ “বা এক অঞ্চল,এক পথ। চীনের প্রভাব বিস্তারের লক্ষ্যে ঋন প্রদানের মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প।২০১৩ সালে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং এ নীতি গ্রহণ করে।

8. “উলফ ওয়ারিয়র নীতি”। এটি চীনের নব্য কূটনীতির অংশ।চীনের আগ্রাসী কূটনীতিকে ‘উলফ ওয়ারিয়র’ ডিপ্লোমেসি হিসেবে অভিহিত করা হয়। প্রকৃতপক্ষে উলফ ওয়ারিয়র চীনের একটি জনপ্রিয় সিনেমা, যেখানে এর চরিত্রগুলো হলিউডের জনপ্রিয় মুভি র‌্যাম্বোর মতো চীনের স্বার্থ রক্ষা করে।

9. পান্ডা নীতি। চীন বিভিন্ন রাষ্ট্রের সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক গড়তে প্রাচীন কাল থেকে পান্ডা উপহার দিয়ে থাকে।

10. চীন বৌদ্ধ রাষ্ট্র হিসেবে উত্থান হলেও বর্তমানে নিদিষ্ট কোন প্রধান ধর্ম সেখানে নেই বললেই চলে। কর্মই ধর্ম, তারা এ নীতিতে বিশ্বাসী।

চীনা নীতি বা তত্ত্বসমূহ ছাড়া আরও পড়ুনঃ

ফেইসবুকে আপডেট পেতে আমাদের অফিসিয়াল পেইজ ও অফিসিয়াল গ্রুপের সাথে যুক্ত থাকুন। ইউটিউবে পড়াশুনার ভিডিও পেতে আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন। আমাদের সাইট থেকে কপি হয়না তাই পোস্টটি শেয়ার করে নিজের টাইমলাইনে রাখতে পারেন।