চতুর্থ শিল্প বিপ্লব ও কর্মমুখী শিক্ষা

ফোকাস রাইটিং : ব্লু ইকোনমি
Content Protection by DMCA.com

ফোকাস রাইটিং
চতুর্থ শিল্প বিপ্লব ও কর্মমুখী শিক্ষা

রূপসী বাংলার অপ্রতুল ভূমিতে বিশাল জনগোষ্ঠীকে জনশক্তিতে পরিণত করতে আর কালবিলম্বের সুযোগ নেই। আমরা চতুর্থ শিল্প বিপ্লবকাল পার করছি। বৈশ্বিক বাস্তবতার সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে পারাটাই মূল চ্যালেঞ্জ। সবাইকে কর্মমুখী শিক্ষা অর্থাৎ কারিগরি শিক্ষার গুরুত্বের প্রতি সচেতন হতে হবে।

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বলেছেন, ‘তাকেই বলি শ্রেষ্ঠ শিক্ষা, যা কেবল তথ্য পরিবেশন করে না, যা বিশ্ব সত্তার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে আমাদের জীবনকে গড়ে তোলে।’ বর্তমান সরকার শিক্ষাব্যবস্থার এ ধাপটিতে ব্যাপক জোর দিয়েছে। এর প্রমাণ হলো কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের সূত্রমতে, বর্তমানে দেশে ৮ হাজার ৬৭৫টি কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে।

ইতোমধ্যে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষার হার ২০ শতাংশে উন্নীত হয়েছে যা ২০৩০ সালের মধ্যে ৩০ শতাংশে উন্নীত করার লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করা হয়েছে। আজ হতে ১৫ বছর আগেও এর হার ছিল ২ শতাংশের মতো। তবে শুধু সরকারের সদিচ্ছা থাকলেই চলবে না, জনগণকেও এ বিষয়ে এগিয়ে আসতে হবে। উচ্চ শিক্ষা গ্রহণকে একমাত্র লক্ষ্য হিসেবে ঠিক করার মনোভাব পরিহার করতে হবে।

পুরোটা পড়ুন

চতুর্থ শিল্প বিপ্লব ও কর্মমুখী শিক্ষা ছাড়া আরও পড়ুনঃ

ফেইসবুকে আপডেট পেতে আমাদের অফিসিয়াল পেইজ ও অফিসিয়াল গ্রুপের সাথে যুক্ত থাকুন। ইউটিউবে পড়াশুনার ভিডিও পেতে আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন। আমাদের সাইট থেকে কপি হয়না তাই পোস্টটি শেয়ার করে নিজের টাইমলাইনে রাখতে পারেন।