ইংরেজি সাহিত্য The Commonwealth Period (1649-1660): A to Z

ইংরেজি সাহিত্যের যুগবিভাগ টেকনিকে মনে রাখুন
Content Protection by DMCA.com

ইংরেজি সাহিত্য The Commonwealth Period (1649-1660): A to Z

বিসিএস প্রস্তুতিতে ইংরেজি সাহিত্য নিয়ে কিছু কথা না বললেই নয়। বিসিএস প্রিলির এই অংশটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কেবল প্রিলিতেই ১৫ মার্ক থাকে মোটামুটি । রিটেনে ভূমিকা রাখবে কিছু কোটেশন এর কাজে। তাই এই অংশে যতটা পারা যায় কম পড়ে ভাল মার্ক তুলে নিতে হবে, এই প্লান ছাড়া অন্য কিছু মাথায় না রাখাটাই ভাল। তাই আপনি চাইলেই এ অংশে কিভাবে ভাল মার্ক তুলে নিতে পারেন, তাই থাকছে আমাদের ধারাবাহিক আলোচনায়। আজ থাকছে The Commonwealth Period এর গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে A to Z আলোচনা।

 

The Commonwealth Period(1649-1660)

ইংরেজি সাহিত্যে কমনওয়েলথ পিরিওড কে অরাজকাল বা Puritan interregnum বলে। এই সময়কার পুরিতান লিডার বা নেতা ছিলেন অলিভার ক্রমওয়েল এই সময়ে জন মিল্টন তার বিভিন্ন রাজনৈতিক লেখা লিখেছিলেন। এছাড়াও আরো লিবি থান এই সময়ে লেখা। এই সময়ে পাবলিক স্টেজ পারফরম্যান্স বা থিয়েটার বন্ধ করে দেওয়া হয়।

Why the Age is Called the Commonwealth period?
ইংরেজি সাহিত্যের ইতিহাস 1649 থেকে 1660 সাল পর্যন্ত সময়কাল কমনওয়েলথ পিরিওড বলে পরিচিত। কারণ এ সময়ে ইংল্যান্ডে কোন রাজতন্ত্র ছিলনা। কমনওয়েলথ বা গণতন্ত্র চালু হয়েছিল। রাজতন্ত্রে বীতশ্রদ্ধ জনসাধারণকে গণতন্ত্রের জন্য বহু সংগ্রাম করতে হয় অলিভার ক্রমওয়েল সিলেনে সংগ্রামের নেতা।
অবশেষে 1649 সালে প্রথম চার্লসের শিরশ্ছেদ হয়ে গেলে তিনি ইংল্যান্ডের রাজ্য ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হন। তারে ক্ষমতা গ্রহণের মাধ্যমে রাজতন্ত্রের বিলুপ্তি ঘটে এবং গণতন্ত্রের উন্মেষ হয়। যেহেতু এ সময়ে কমনওয়েলথও বা গণতন্ত্র চালু ছিল তাই এ যুগে কমনওয়েলথ পিরিওড বলা হয়।

 

Thomas Hobbies (1588-1679)

1. তাকে আধুনিক রাজনৈতিক দর্শনের জনক বলা হয় (political philosophe)
2. তার সর্বশ্রেষ্ঠ রচনা Leviathan( লিভিয়াথান) এই গ্রন্থে তিনি রাজার সার্বভৌম অধিকারের কথা ঘোষণা করেছেন।
3. Quite: The end of knowledge is power.

 

John Milton (1608-1674)
(An English Epic Poet)

1608 সালের 9 ডিসেম্বর লন্ডন শহরে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। তাঁর পিতা ছিলেন একজন শিক্ষিত মানুষ এবং উঁচু পদের করণিক। মুল পেশা ছিল দলিল-দস্তাবেজ তৈরি করা। সংগীতের ও সমঝোতার ছিলেন তিনি । 1952 সালে হঠাৎ করেই তিনি একেবারে অন্ধ হয়ে যান। অবস্থায় তিনি তাঁর বিখ্যাত কাব্য প্যারাডাইস লস্ট রচনা করেন। তার এই কাব্য তাকে খ্যাতি ও সম্মান এনে দেয়। তার বিখ্যাত সাহিত্যকর্ম গুলোর মাঝে উল্লেখযোগ্য হল প্যারাডাইস লস্ট( 1667) প্যারাডাইস রেগেনড (1671) স্যামসন, এগোনিস্টিস (1671)। 1974 সালে এই যুগন্ধর কবি ইহলোক ত্যাগ করেন। মিল্টনকে বলা যায় তার সময়কালের একজন আপোষহীন সংগ্রামী সেনানায়ক। তিনি প্যারাডাইস লস্ট মহাকাব্যের জন্য বিখ্যাত

গুরুত্বপূর্ণ তথ্যঃ
i) John Milton ছিলেন The great master of Blank Verse.
iii) Paradise Lost মুলত একটি Epic.
iii) John Milton এর একটি উল্লেখ যোগ্য Elegy হলো Lycidas.
iv) Paradise Lost মহাকাব্যের একটি লাইন হলো Better to reign in Hell then serve in Heaven.
v) ১৬৫২ সালে হঠাৎ করেই তিনি একেবারে অন্ধ হয়ে যান।
vi) প্যারাডাইস লস্ট বিখ্যাত কর্ম।
VII) এছাড়াও তাঁর একটি মহাকাব্য হল paradise Regained.
viii) তার অন্যান্য রচনার মধ্যে “O Nightingale”, How soon Hath Time” হয় দুটি Sonne.
ix) Areopagitica একটি Phamplet যা লেখা হয়েছিল লেখক প্রকাশক ও প্রকাশনা সংস্থার স্বাধীনতার জন্য।
x) Paradise Lost মহাকাব্যের একটি বিখ্যাত লাইন হলো Better to reign in Hell then serve in Heaven.
xi) Paradise Lost মহাকাব্যের চরিত্র গুলো হলো Adam, Eve, Satan, Beelzebub, Mammon.
xii) “Paradise regained” (in four boo) and “Samson Agonists” (a noble drama on the Greek model)
xiii) প্যারাডাইজ লস্ট এর থিম হচ্ছে “Justify the ways of God to men” এখানে কেন্দ্রীয় চরিত্র হচ্ছেশয়তান।
xiv) Paradise Lost is separated into Twelve ” books” or sections, the lengths of which vary greatly (the longest is Book IX, with 1,189 lines, and the shortest Book VII, with 640). It is Originally divided into ten, afterwards into twelve books.

His famous works:
a. Paradise Lost(Epic)
b. Paradise Regained( in four books)
c. Samson Agonists( a Noble drama on the Greek mode)
d. Lycidas. (Elegy)

Short Technique: LIPS

L=Lycidas (elegy)
I=
P= Paradise Lost (Epic poet) Paradise Regained
S=Samson Agonistes

John Milton Quotations:
1. “Better to reign in Hell than serve in Heave.” (স্বর্গের দাসত্ব থেকে নরকের রাজত্ব অনেক ভাল) Speech of Satan. (paradise lost)
2. Childhood shows the man, Asia morning shows the days. (সকালেই বুঝা যায় দিনটিকে কেমন যাবে তেমনি শিশু বেলায় বোঝা যায় মহৎ মানুষের প্রতিচ্ছবি /”উঠন্তি মুলো পত্তনেই চেনা যায় “) (Paradise Regained)

 

Jeremy Taylor (1613-1667)

Famous prose:
♦ Holy Living
♦ Holy Dying

ইংরেজি সাহিত্য The Commonwealth Period (1649-1660): A to Z ছাড়া আরও পড়ুনঃ

William Shakespeare থেকে বেশি আসা প্রশ্ন গুলো।
William Shakespeare এর “TRAGEDY” মনে রাখার টেকনিক
English Literature MCQ Questions & Answers For BCS, BANK & All Competitive Exams.

Part-1[1-105]Part-2[106-210]Part-3[211-315]Part-4[316-420]Part-5[421-525]

ফেইসবুকে আপডেট পেতে আমাদের অফিসিয়াল পেইজ ও অফিসিয়াল গ্রুপের সাথে যুক্ত থাকুন। ইউটিউবে পড়াশুনার ভিডিও পেতে আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন।

পুনরায় দেখতে নিজের টাইমলাইনে শেয়ার করে রাখুন-