আজকের প্রথম আলো সম্পাদকীয় অনুবাদ চর্চা : পর্ব-৯

প্রথম আলো সম্পাদকীয়
Content Protection by DMCA.com

আজকের প্রথম আলো সম্পাদকীয় অনুবাদ চর্চা : পর্ব-৯ (Translation Bangla to English)

ব্যাংকের লিখিত পরিক্ষায় অনুবাদ দুইভাবে আসতে পারে—ইংরেজি থেকে বাংলা এবং বাংলা থেকে ইংরেজি। শব্দভাণ্ডার (Vocabulary) সমৃদ্ধ হলে উভয় ক্ষেত্রেই ভালো করা যাবে। আর শব্দভাণ্ডার (Vocabulary) সমৃদ্ধ করতে নিয়মিত প্রথম আলো সম্পাদকীয় অনুবাদ চর্চার কোন বিকল্প নেই। আর হ্যাঁ অজানা শব্দগুলোর অর্থসহ অবশ্যই খাতায় নোট করে রাখুন।

শিরোনাম:— শ্রমিকদের অর্থসহায়তা : Financial assistance to workers.

Tagline:— গাফিলতি ও অব্যবস্থাপনা দূর করুন. : Eliminate negligence and mismanagement.

Date: 13 November 2020
Translated byBD Study Corner

এখন অনুবাদের চেষ্টা করি:-

01. ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও জার্মান সরকার বাংলাদেশে কোভিডকালে কাজ হারানো শ্রমিকদের সহায়তার জন্য বাংলাদেশি মুদ্রায় ১ হাজার ১৩৫ কোটি টাকার একটি তহবিল দান করেছে। আমরা তাদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।

কিন্তু দুর্ভাগ্যের বিষয়, আমাদেরই গড়িমসি, অব্যবস্থাপনা ও আন্তরিক তাগিদের অভাবে জীবিকা হারানো শ্রমিকেরা এই অর্থসহায়তা এখনো হাতে পাননি। ১২ নভেম্বর প্রথম আলোয় খবর বেরিয়েছে, শ্রমিকদের সহায়তা করার এই পুরো উদ্যোগই ব্যর্থ হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

কোভিডকালে – during the  period of COVID
তহবিল দান – donated a fund
আমরা তাদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই – We sincerely thank them
পুরো উদ্যোগই ব্যর্থ হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। – There is a danger that the whole initiative will fail.

সাজানো অনুবাদঃ The European Union and the German government have donated a fund of Taka 1,135 crore in Bangladeshi currency to help workers who lost their jobs during the  period of COVID in Bangladesh. We sincerely thank them.

But unfortunately, due to our procrastination, mismanagement and lack of sincere efforts, the workers who lost their livelihood have not yet received this financial assistance. As reported by Prothom Alo on November 12, this whole initiative to help the workers is in danger of failing.

02. কোভিড–১৯ মহামারিকালে, অর্থাৎ ৮ মার্চ থেকে রপ্তানিমুখী তৈরি পোশাক, চামড়াজাত পণ্য ও পাদুকাশিল্পের যেসব শ্রমিক চাকরি হারিয়েছেন এবং এখনো কর্মহীন রয়েছেন, তাঁদের মাসে ৩ হাজার টাকা করে তিন মাসে ৯ হাজার টাকা দেওয়ার কাজটি কীভাবে সম্পন্ন করতে হবে, সে বিষয়ে সরকারের শ্রম মন্ত্রণালয় ৭ অক্টোবর একটি নীতিমালা গেজেট আকারে প্রকাশ করেছে। তারপর দীর্ঘ এক মাসের বেশি সময় চলে গেছে, কিন্তু কোনো শ্রমিক এই তহবিল থেকে কোনো টাকা পাননি।

মহামারিকালে – during the epidemic
রপ্তানিমুখী তৈরি পোশাক – Export-oriented readymade garments
চামড়াজাত পণ্য ও পাদুকাশিল্পের – Of leather goods and footwear industry

সাজানো অনুবাদঃ The government’s labor ministry has asked the government to pay Rs 3,000 a month and Rs 9,000 a month for workers who have lost their jobs and are still unemployed during the Covid-19 epidemic, ie export-oriented garments, leather goods and footwear. October published a policy in the form of a gazette. Then more than a month went by, but no worker received any money from this fund

03. কেন? প্রথম কারণ, নীতিমালার অনুসরণে অর্থসহায়তা পাওয়ার যোগ্য শ্রমিকদের তালিকা তৈরির প্রাথমিক দায়িত্ব সংশ্লিষ্ট কারখানাগুলোর পাশাপাশি যে চারটি ব্যবসায়ী সংগঠনকে দেওয়া হয়েছে, তারা তা পালন করেনি।

তৈরি পোশাকশিল্পের মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর সদস্য কয়েকটি প্রতিষ্ঠান তাদের তালিকা দিয়েছে বটে, কিন্তু ব্যবসায়ী সংগঠনগুলো এ বিষয়ে কোনো আগ্রহ দেখাচ্ছে না বলে শ্রমিকদের অর্থসহায়তা প্রদানের কাজটি শুরুই হচ্ছে না।

ব্যবসায়ী সংগঠনগুলো তালিকা তৈরির ক্ষেত্রে নানা সীমাবদ্ধতার কথা বলছে বলে শ্রম অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রথম আলোকে বলেছেন। সীমাবদ্ধতাগুলো সুনির্দিষ্টভাবে চিহ্নিত করে সমাধানের উদ্যোগ কেন নেওয়া হচ্ছে না, তা বোধগম্য নয়।

নীতিমালার অনুসরণে অর্থসহায়তা – Financial assistance in following the policy
বিজিএমইএর সদস্য কয়েকটি প্রতিষ্ঠান – Several organizations are members of BGMEA
মহাপরিচালক – director general.
বোধগম্য – appreciable, apprehensible, Intelligible

সাজানো অনুবাদঃ Why? The first reason is that the primary task of compiling the list of eligible workers for the subsidy in accordance with the policy was given to the concerned factories as well as to the four trade associations which did not comply with it.

Several members of the BGMEA, an association of garment industry owners, have given their lists, but trade unions have not shown any interest in the matter and the work of providing financial assistance to the workers has not started.

The director-general of the labor department told Prothom Alo that the business associations are talking about various limitations in compiling the list. It is not clear why steps are not being taken to address the limitations.

04. কারখানা বা প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের শ্রমিকদের চাকরির বিষয়ে সঠিক ও হালনাগাদ তথ্য সংরক্ষণ করলে কোভিড–১৯ কালে কারা চাকরি হারিয়েছেন, পরে আবার কারা চাকরি ফিরে পেয়েছেন—এসব বিষয় নির্ধারণ করা অবশ্যই সম্ভব। বিকেএমইএর সহসভাপতি মোহাম্মদ হাতেম প্রথম আলোকে বলেছেন, তাঁরা কাজ হারানো শ্রমিকদের তালিকা তৈরি করতে পারছেন না। কারণ, ছাঁটাই হওয়া শ্রমিকেরা পরে চাকরি ফিরে পেয়েছেন কি না, সে বিষয়ে তাঁদের কোনো তথ্যভান্ডার নেই।

হালনাগাদ তথ্য সংরক্ষণ – store accurate and up-to-date information
অবশ্যই সম্ভব – it is possible to determine
সহসভাপতি – vice-president
ছাঁটাই হওয়া শ্রমিক- Retired workers/list of workers who lost their jobs/retrenched
তথ্যভান্ডার – database

সাজানো অনুবাদঃ If factories or organizations store accurate and up-to-date information about the jobs of their workers, it is possible to determine who lost their jobs during the Covid-19 period and who got their jobs back later. BKMEA vice-president Mohammad Hatem told Prothom Alo that they could not compile a list of workers who lost their jobs. Because, they do not have any database about whether the retrenched workers got their jobs back later.

05. অন্তত বিজিএমইএর সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলোর দেওয়া তালিকা ধরে তৈরি পোশাকশিল্পের শ্রমিকদের অর্থসহায়তার টাকা প্রদান করা সম্ভব ছিল। কিন্তু শ্রম অধিদপ্তর বলছে, তাদের তালিকাগুলোতে তথ্যগত ত্রুটি–বিচ্যুতি আছে। তাহলে কেন সেসব দ্রুত যাচাই–বাছাই করে শ্রমিকদের অর্থসহায়তা দেওয়া হচ্ছে না, তা বোধগম্য নয়।

অন্তত – At least
শ্রম অধিদপ্তর – Department of Labor
তথ্যগত ত্রুটি–বিচ্যুতি – lists have informational errors

সাজানো অনুবাদঃ At least it was possible to provide financial assistance to the garment workers based on the list provided by the BGMEA member organizations. But the Department of Labor says their lists have informational errors. So it is not understandable why the workers are not being given financial assistance by checking and sorting them out quickly.

06. জীবিকা হারানো শ্রমিকদের অর্থসহায়তা প্রদানের কাজটি যেন তাড়াতাড়ি সম্পন্ন হয়, তা নিশ্চিত করা হোক।

নিশ্চিত করা – Ensure
জীবিকা হারানো শ্রমিকদের – Workers losing their livelihood
তাড়াতাড়ি সম্পন্ন – completed as soon as possible

সাজানো অনুবাদঃ Ensure that the work of providing financial assistance to the workers who have lost their livelihood is completed as soon as possible.

আজকের প্রথম আলো সম্পাদকীয় অনুবাদ চর্চা ছাড়া আরোও পড়ুন-

ফেইসবুকে আপডেট পেতে আমাদের অফিসিয়াল পেইজ ও অফিসিয়াল গ্রুপের সাথে যুক্ত থাকুন। ইউটিউবে পড়াশুনার ভিডিও পেতে আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন।